নিবন্ধন

 
 
পৃথিবীব্যাপী প্লাস্টিক বর্জ্য পরিবেশের জন্য বড় হুমকি হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়।
বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ওয়েস্ট কনসার্নের ২০১৯ সালের তথ্য অনুযায়ী, এক বছরে দেশের নগর অঞ্চলে সৃষ্টি হওয়া বর্জ্যের পরিমাণ ছিল ৮ লাখ ২১ হাজার ২৫০ টন।
এই বর্জ্যের ৩৬ শতাংশ যথাযথভাবে রিসাইকেল হয়। আর ২০১৭ সালে দেশে মাথাপিছু প্লাস্টিক পণ্যের ব্যবহার ছিল ১৭.২৪ কেজি।
দেশের সচেতন মানুষরা নিজেদের প্লাস্টিক বর্জ্যের হিসাব যেন নিজেরা জানতে/রাখতে পারেন সেই লক্ষ্যে এই প্ল্যাস্টিক ট্র্যাকার।
এই ট্র্যাকারে আপনার প্লাস্টিক বর্জ্যের হিসাব আপনি নিজেই রাখতে পারবেন।
ঘরে প্লাস্টিক বর্জ্য তৈরি হওয়ামাত্র সেই তথ্যটি এই অ্যাপ্লিকেশনে আপনি লিখে রাখতে পারবেন।
মাসের শেষে পেয়ে যাবেন আপনার মোট প্লাস্টিক বর্জ্যের হিসাব।
ফরমটি পূরণ করে নিবন্ধন সম্পন্ন করুন। করতে থাকুন আপনার প্ল্যাস্টিক বর্জ্য ট্র্যাকিং।
 

 

গণমাধ্যমে 'প্লাস্টিক ট্র্যাকার' নিয়ে খবর

'Plastic Tracker' coverage in media