সাপ্তাহিক কর্মঘণ্টা: ১২ বছরে কতটা বদলেছে বাংলাদেশ

দশম সংসদ নির্বাচনের আগের বছর অর্থাৎ ২০১৩ সালে দেশে পুরুষের সাপ্তাহিক কর্মঘণ্টা কমে এলেও নারীর কর্মঘণ্টা বেড়ে গিয়েছিল

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) সনদ অনুযায়ী একজন মানুষের সপ্তাহে ৪৮ ঘণ্টা কাজ করা মানসম্মত। বাংলাদেশের মানুষ সপ্তাহে কত ঘণ্টা কাজ করে? বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) গত এক যুগের পাঁচটি শ্রম জরিপের ডেটা থেকে সেই উত্তর খোঁজার চেষ্টা করেছে ডেটাফুল।

১. সামগ্রিক অর্থাৎ নারী-পুরুষ উভয় মিলিয়ে গত বছর বাংলাদেশের মানুষের সাপ্তাহিক কর্মঘণ্টা ছিল ৪৮ ঘণ্টা।  তবে এক যুগে আগে এই কর্মঘণ্টা আইএলও-সম্মত সময়ের চেয়ে কিছুটা কম ছিল।  পুরুষদের ক্ষেত্রে এই কর্মঘণ্টা সব জরিপেই আইএলও-সম্মত সময়ের চেয়ে বেশি দেখা গেছে।

 

২. এক যুগে বাংলাদেশের গ্রামে নারীদের সাপ্তাহিক কর্মঘণ্টায় উল্লেখযোগ্য উন্নতি হয়েছে।  তবে সেখানে সামগ্রিক কর্মঘণ্টা এখনও আইএলও-সম্মত সময়ের চেয়ে কিছুটা কম।

 

৩. নগরের মানুষদের ক্ষেত্রে সামগ্রিক কর্মঘণ্টার আইএলও মান বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই মানা হচ্ছে না। নগরে সামগ্রিক সাপ্তাহিক কর্মঘণ্টা মাঝে দুবছর মানসম্মত পর্যায়ে থাকলেও বর্তমানে তা এক যুগ আগের মতোই আইএলও-সম্মত চেয়ে বেশি।

 

৪. গ্রামে নারীর সাপ্তাহিক কর্মঘণ্টা এক যুগ আগের তুলনায় ১৪ ঘণ্টা বাড়লেও তা এখনও ৪৮ ঘণ্টায় পৌঁছায়নি।  নগরে নারীর কর্মঘণ্টা ৭ ঘণ্টা বেড়েছে।

 

৫. নগরের পুরুষদের সাপ্তাহিক কর্মঘণ্টা মাঝে তিন দফায় কমে-বেড়ে বর্তমানে আইএলও-সম্মত সময়ের চেয়ে বেশি ৭ ঘণ্টা বেশি।  এক যুগ আগেও পুরুষের কর্মঘণ্টা ৭ ঘণ্টা বেশি ছিল।


Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *